কীভাবে বাড়ানো যায় নারীর কর্মসংস্থান: তত্ত্ব, তথ্য এবং নীতিমালা

ভূমিকা মোট জনসংখ্যার এবং সম্ভাব্য শ্রমশক্তির প্রায় অর্ধেক নারী| সুতরাং কোনো দেশের জনশক্তি যথাযথভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে কি না তা অনেকাংশে নির্ভর করে শ্রমশক্তিতে নারীর অংশগ্রহণের উপর| অনেক উন্নয়নশীল দেশেই শ্রমবাজারে নারীর অংশ গ্রহণের হার পুরুষদের চাইতে অনেক কম, এবং তার ফলে মোট শ্রমশক্তিতে তাদের অংশ অর্ধেকের চাইতে বেশ কম| শুধু তাই নয়, নারীর কর্মসংস্থানের নিয়ামক উপাদানসমূহের অনেকগুলোই পুরুষের তুলনায় ভিন্ন| তাছাড়া শ্রমবাজারে নারীর অবস্থানেও পার্থক্য দেখা যায়, এবং অনেক ক্ষেত্রেই নারীকে বৈষম্যের স্বীকার হতে হয়| এসব কারণে নারীর কর্মসংস্থান নিয়ে পৃথক আলোচনার প্রয়োজন, যা বর্তমান নিবন্ধের বিষয়| শ্রমবাজারে নারীর অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ এই কারণে যে শ্রম উৎপাদনের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান, এবং নারীর অংশগ্রহনের সাথে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির একটি ইতিবাচক সম্পর্ক আছে| আর নিম্ন আয়ের পরিবারে দারিদ্র হ্রাসেও নারীর কর্মসংস্থান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে, কারণ এর মাধ্যমে উৎপাদন এবং আয় বৃদ্ধি হয়| তদুপরি, নারীর কর্মসংস্থানের সাথে তাদের ক্ষমতায়নের ইতিবাচক সম্পর্ক দেখা যায়| 

See Attachment